We provide Facebook advertising services in Bangladesh reaching the right target people for promoting business organizations, fan pages, products, causes etc. Facebook advertising system is the most powerful tool now a days for bringing the result to satisfy client. There is no alternative of Facebook advertising for effective digital marketing service to unlock the full potential of any businesses.

FACEBOOK ADS PRICING

Start your Facebook advertising from minimum 1000 tk. Further cost will depend on the number of engagement, reach, likes etc. the ad receives. We follow the most standard and convenient pricing model for better understanding and providing quality ad service. We don’t make promises to earn huge reach, like by certain amount of money. We make the process easy to drive maximum results and provide stable marketing solutions.

PACKAGE

Click the button below and choose one that best suit for you. However, it is truly hard to determine exact reach, engagement or like by the amount you spend for each advertise. You can get idea about approximate reach from our portfolio items. Also see the Q/A section in Bangla below to know the number of reach and like.

Select Package

 

HOW TO ORDER

Step 1

Check Facebook Advertising Policy issues i.e. copyright, age-restricted and prohibited contents, text use in ad images etc. Please don’t proceed further if your page, post or photo that you want to promote here don’t meet these policies.

Step 2

Sent your Facebook page address (URL) to our messenger with requirements.

Facebook advertising in BangladeshStep 3

Set a given email address as an Advertiser of your page.

Step 4

Pay directly or through our bKash or DBBL Rocket number or bank account number. DONE!

Your advertisement will be appearing on Facebook after the payment. All advertisement processes take maximum 24 hours for submitting and reviewing by Facebook authority though it takes few minutes at best to publish.

Facebook advertising can yield good return on investment, but for getting the best result, there are few things we always do for our clients while setting up the ad.

ফেসবুক এ্যাড সম্পর্কিত সচরাচর যেসব বিষয়ে জানতে চাওয়া হয় সেগুলোর উত্তর এখানে দেয়া হলো।

যারা ফেসবুকে আগে কখনও বিজ্ঞাপন দেননি তাদের প্রথম প্রশ্নই হয় এমন। বিজ্ঞাপন দিতে চাই, কিন্তু কিভাবে কি করতে হবে? প্রথম এ্যাডের ক্ষেত্রে তাদের একটু বেশি সহায়তার প্রয়োজন হয়। আমাদের চেষ্টা থাকে তাদের সর্বোচ্চ সহায়তা করার। অন্যান্য মিডিয়া যেমন পত্রিকা, টিভি বা রেডিও থেকে ফেসবুকে এ্যাডের ধরন খানিকটা ভিন্ন। নিচে ধাপে ধাপে কিছু প্রশ্নের উত্তর দেবার চেষ্টা করা হয়েছে।

১. ফেসবুক ফ্যানপেজের ফ্যান বাড়াতে চান? কোন নির্দিষ্ট পোস্টের প্রচার করতে চান? নাকি ওয়েবসাইটের ভিজিটর বাড়াতে চান অথবা কোন ভিডিও প্রচারণা চালাতে চান? মানে ফেসবুক এ্যাডের মাধ্যমে আপনি কি প্রচার করতে চান তা প্রথমেই নির্ধারণ করুন।

২. আমাদের দেয়া নির্দিষ্ট একটি ই-মেইল কে এ্যাডভার্টাইজার হিসেবে সেট করুন। এ্যাডভার্টাইজার সেট করার পদ্ধতি পরবর্তী প্রশ্নের সাথে দেয়া আছে।

৩. কত টাকার এ্যাড দিতে চান এবং তা কত দিন পর্যন্ত চালাতে চান তা নির্ধারণ করুন। এরপর বিকাশের মাধ্যমে অথবা সরাসরি আমাদের সাথে যোগাযোগ করে টাকা পরিশোধ করুন। টাকা পাওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই আপনার এ্যাডটি সাবমিট করা হবে।

বিকাশের মাধ্যমে অথবা সরাসরি পেমেন্ট করতে পারেন। বিকাশের মাধ্যমে পেমেন্টের জন্য অবশ্যয় নির্ধারিত প্রতি ১০০০ টাকায় ২০ টাকা চার্জ দিতে হবে। এছাড়া বড় অংকের টাকা ব্যাংক এ্যাকাউন্টের মাধ্যমেও পাঠাতে পারেন।
সর্বনিম্ন ১০০০ টাকা দিয়ে শুরু করা যাবে। একই এ্যাডে এককালীন ৫০,০০০ টাকা বিনিয়োগ করতে চাইলে বিশেষ ছাড়ের ব্যবস্থা রয়েছে।
সঠিক সংখ্যা আসলে কেউ দিতে পারে না। কারণ একটি এ্যাড চালুর পর তা কত মানুষের কাছে যাবে অথবা কতগুলো লাইক পাবে তা অনেকগুলো বিষয়ের উপর নির্ভর করে। আমাদের চেষ্টা থাকে যেন আপনি সর্বোচ্চ ফলাফল পেতে পারেন। তবে মোটের উপর একটি ধারনা পাবার জন্য নিচের পোর্টফলিও থেকে সর্বশেষ কয়েকটি এ্যাডের ফলাফল দেখলেই আশা করি বুঝতে পারবেন। সাধারনত পোস্ট রিচ -এর ক্ষেত্রে প্রতি ১০০০ টাকায় ১৫০০০৩০০০০ অথবা তারও বেশি ফেসবুক ব্যবহারকারীর কাছে পৌছানো যায়। এবং পেজ লাইক -এর ক্ষেত্রে প্রতি ১০০০ টাকায় প্রায় ১০০০-৩৫০০ পর্যন্ত অথবা তারও বেশি লাইক পাওয়া যায়।

আরেকটি বিষয় হলো টার্গেট নির্দিষ্ট করে দেয়ার উপর ফেসবুক এ্যাডের খরচ অনেকটা নির্ভর করে। যেমন আপনি যদি শুধু গুলশান এলাকার ৩০-৫৫ বছর বয়সী আইফোন-৭ মোবাইল ফোন ব্যবহারকারী চান তবে স্বাভাবিকভাবে সেটির ‘Per Post Engagement’ এবং ‘Per Like’ রেট বেশি হবে। এখন আপনার ক্লায়েন্ট যদি নির্দিষ্ট ঐ এলাকার ঐ শ্রেণীরই হয়ে থাকে তবে সর্বোচ্চ ফলাফলের জন্য এই সেটআপের কোন বিকল্প নেই। এ ধরনের টার্গেট এ্যাডের সুবিধা অন্য কোন প্রচলিত মাধ্যমে পাওয়া সম্ভব না।

এই মুহূর্তে আমাদের কোন অফিস নেই। তবে কেউ সরাসরি এসে এ্যাড দিতে চাইলে অথবা কথা বলতে চাইলে ফোন করে আমাদের যোগাযোগ পাতার ঠিকানায় চলে আসতে পারেন।
বিজ্ঞাপন শুরু হওয়ার পর স্বাভাবিকভাবেই পেজের রিচ বা লাইক বেড়ে যাবে এবং সেটার নোটিশ প্রতিনিয়ত আপনার নোটিফিকেশন ট্যাবে পাবেন। এছাড়া ফ্যান পেজের উপরের দিক থেকে ‘Insights’ এ ক্লিক করে বিস্তারিত জানতে পারবেন। এছাড়া প্রয়োজনে প্রতিনিয়ত আমাদের বিজনেস এ্যাকাউন্ট থেকে স্ক্রিনশন রিপোর্ট দিয়ে থাকি।
ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আসলে বিজ্ঞাপনের জন্য কোন প্যাকেজ অফার করেনা। যারা নিজেদের মত করে প্যাকেজ তৈরি করেছে এটা একান্তই তাদের নিজস্ব ব্যাপার। এরসাথে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের কোন অফারের মিল নেই। ব্যাঙ্গের ছাতার মত গড়ে উঠা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি পর্যায়ে যারা এই সার্ভিস দিচ্ছেন এবং প্যাকেজের নামে নির্দিষ্ট রিচ ও লাইকের একটা তালিকা করেছেন তারা কেউ আসলে ঐ নির্দিষ্ট পরিমাণ রিচ বা লাইকের নিশ্চয়তা দিতে পারবে না। তবে শুধুমাত্র ক্লায়েন্টদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে আমরাও একটি তালিকা তৈরি করেছি।
আগেই বলেছি টিভি, রেডিও অথবা পত্রিকার বিজ্ঞাপন থেকে ফেসবুকে বিজ্ঞাপনের ধরন সম্পূর্ণ আলাদা। কোন এ্যাড সফলভাবে চালু হওয়ার পরও আপনি সেটি দেখতে পাবেন কিনা তা নির্ভর করছে যেভাবে এ্যাডটি সেট করা হয়েছে সেই নির্ধারিত ক্যাটাগরিতে আপনি আছেন কিনা। যেমন আপনার বয়স ফেসবুকে যদি দেয়া থাকে ৪০ বছর আর লোকেশন চট্টগ্রাম এবার আপনি এ্যাড সেট করার সময় উল্লেখ করলেন যাদের বয়স ১৩ থেকে ৩৫ এবং লোকেশন ঢাকা। খুব স্বাভাবিকভাবেই আপনি এই এ্যাডটি দেখতে পাবেন না। আবার সব ঠিক থাকার পরও বাজেট যদি কম হয় তবে এ্যাডটি আপনার ফেসবুক ফিডে নাও আসতে পারে। কারণ ইতেমধ্যেই হয়ত এ্যাডটি একই ক্যাটাগরির অন্য ইউজারের কাছে পৌছে গেছে।
অবশ্যয় ফেরত পাবেন। কোন কারণে আপনার এ্যাডটি অ্যাপ্রুভ না হলে অথবা অ্যাপ্রুভ হওয়ার পর বাতিল হলে অবশ্যয় টাকা ফেরত পাবেন। সেক্ষেত্রে শুধু নির্ধারিত সামান্য অংকের সেটআপ চার্জ কেটে নেয়া হবে।
এ ধরনের কোন নিশ্চয়তা নেই। ফেসবুকে যে পদ্ধতিতে এ্যাড পরিচালিত হয় সেই নিয়ম অনুযায়ী একই বাজেটের মধ্যে যে সময়ই নির্ধারণ করা হোক না কেন তা নির্দিষ্ট ঐ সংখ্যার ইউজারের কাছে পৌছে যায়।
ফেসবুক এ্যাড পরিচালনার জন্য একজনকে আপনার পেজের এ্যাডভার্টাইজার বানাতে হয়। এজন্য পেজের উপর দিক থেকে ‘Settings’ এ ক্লিক করুন। এরপর বাম দিক থেকে ‘Page Role’ এ ক্লিক করলে একটি বক্স আসবে যেখানে আমাদের ই-মেইল আড্রেসটি দিতে হবে এবং নিচের ড্রপডাউন মেনু থেকে ‘Advertiser’ নির্বাচন করে ‘Save’ বাটনে ক্লিক করুন।

 

To know about estimated reach, like and costing